আ.লীগের দুই মেয়র প্রার্থীর চ্যালেঞ্জ :মহাপরিকল্পনা সফল হবেই

  • ৩০-Dec-২০১৯ ০৫:২০ অপরাহ্ন
Ads

:: ড. কাজী এরতেজা হাসান ::

ঢাকার দুই সিটির মেয়র পদে প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো তাদের প্রার্থী ঘোষণা করেছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী হচ্ছেন দক্ষিণে ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এবং উত্তরে বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম। দক্ষিণে তাপসের সঙ্গে বিএনপির ইশরাক হোসেন ও জাতীয় পার্টির হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলনের লড়াইয়ের কথা শোনা গেছে; আর উত্তরে আতিকুলের সঙ্গে বিএনপির গতবারের প্রার্থী তাবিথ এম আউয়াল ও জাপার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) কামরুল ইসলাম। গত রোববারই আওয়ামী লীগ দুই মেয়র প্রার্থীর পাশাপাশি কাউন্সিলর পদের জন্য দলীয় প্রার্থীদের তালিকাও প্রকাশ করেছে। জনতার ভোটে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত রয়েছেন আওয়ামী লীগের দুই মেয়র প্রার্থী। তারা ইতোমধ্যে নানা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন। উত্তর-দক্ষিণের সমন্বিত কাজের মাধ্যমে আধুনিক ঢাকা গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন উত্তর সিটি করপোরেশনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী গত নয় মাসে উত্তরে পরীক্ষিত মেয়র আতিকুল ইসলাম। অন্যদিকে দলের ঐক্য ও দক্ষিণের মেয়র সাইদ খোকনের সমর্থন চেয়ে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে উন্নত ঢাকা গড়ে তুলতে চান আ.লীগের দক্ষিণের প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস। 

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে মাত্র নয় মাসের জন্য ক্ষমতায় আসেন আতিকুল। স্বল্প সময়েই তিনি জিতে নেন জনতার মন। তার এলাকায় ভোটারদের কাছে দেওয়া কথার প্রায় পুরোটাই রাখতে পেরেছেন তিনি। সাজানো উত্তরকে আরও সাজিয়ে তোলেন মনোরম করে। পরিচ্ছন্নতা, ফুটপাতকে দখলমুক্ত করাসহ নানা পদক্ষেপের কারণে অতিষ্ঠ জনজীবনে নেমে আসে স্বস্তি। অবকাঠামোগত উন্নয়নের ছিল কঠোর নজরদারি। রাজউককে (উত্তর) দালালমুক্ত করে তার এলাকার মানুষের কাছে আরও প্রিয় হয়ে ওঠেন এই মেয়র। তিনি আবারও ক্ষমতায় এসে তার পরিকল্পনায় থাকা বিষয়াদি বাস্তবায়ন করবেনÑ এটাই আশা করা যেতেই পারে। মনোনয়নে সেই আহ্বানই রেখেছেন তিনি। বলেছেন, ‘আসুন আমরা সবাই মিলে একটা সুন্দর ঢাকা শহর গড়ে তুলি। আমরা জানি আমাদের কী চ্যালেঞ্জ রয়েছে, এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হলে একসঙ্গে সবাই মিলে কাজ করতে হবে।’ 

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সিটি করপোরেশনের ব্যর্থতায় সমালোচিত দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকন এবার বাদ পড়েছেন। তার বদলে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনির ছোট ছেলে তাপসকে, যিনি গত তিন মেয়াদ ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্যের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দক্ষিণের মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার পর সাংসদ শেখ ফজলে নূর তাপস দলের ঐক্য আর বর্তমান মেয়র মো. সাঈদ খোকনের সমর্থন চেয়েছেন। পাশাপাশি তিনি রাজধানীবাসীর কল্যাণে একটা মহাপরিকল্পনা করার কথাও বলেছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চান এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সেই উন্নত বাংলাদেশের উন্নত রাজধানী বিনির্মাণ করা অত্যন্ত আবশ্যক উল্লেখ করে তাপস সঠিক পথেই এগোবেন বলে আমরা তার বক্তব্য থেকে ধারণা করতে পেরেছি।

নাগরিকদের চাহিদা অনুযায়ী সুবিধা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকার সিটি করপোরেশনকে দুইভাগে বিভক্ত করেছেন। জনসংখ্যা বেড়েছে নাগরিকরা যখন তাদের সুযোগ-সুবিধা চাহিদা অনুযায়ী পাচ্ছিল না, তখন তিনি এই সিদ্ধান্ত নেন। তিনি জানেন কীভাবে দেশের জনগণকে সেবা দিতে হয়। কারণ তিনি তার পিতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা, তার দেখানো পথেই তিনি হেঁটে চলেছেন। আর তাই দেশকে এগিয়ে নিতে প্রতিটি পদক্ষেপ বঙ্গবন্ধুকন্যা  শেখ হাসিনা ভেবে চিন্তে নেন। সঠিক নেতৃত্বকে প্রাধান্য দেন। তারই ধারাবাহিকতায় রাজধানীকে এগিয়ে নিতে মেয়র হিসাবে আওয়ামী লীগ থেকে দেখতে চান তাপস ও আতিকুলকে। মেয়রপ্রার্থী ফজলে নূর তাপসও বিষয় অনুধাবন করে বলেছেন, ‘সরকারের ২০৪১ উন্নয়ন মহাপরিকল্পনাকে সামনে রেখে রাজধানীবাসীর কল্যাণে একটা মহাপরিকল্পনা করতে চাই যাতে টেকসই নগর উন্নয়নের মাধ্যমে জনগণের চাহিদা পূরণ হয়।’

আজ মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে প্রার্থিতার পক্ষে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে হবে। আগামী বৃহস্পতিবার বাছাই এবং ৯ জানুয়ারি প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন। আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে ভোট গ্রহণ করা হবে। আতিক ও তাপস উত্তর ও দক্ষিণ মিলে একটি সুন্দর ঢাকা উপহার দিতে পারবেন এ প্রত্যাশা ও বিশ্বাস রয়েছে জনতার মনে। 

Ads
Ads