সিএএ বিরোধী আন্দোলন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য প্রত্যাহার করলেন দেওবন্দের মুহতামিম

  • ৯-ফেব্রুয়ারী-২০২০ ০৭:১০ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::

ভারতের নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে নিজের বক্তব্য প্রত্যাহার করেছেন দেশটির দেওবন্দ মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি আবুল কাসেম নোমানী।

এর আগে ওই বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবিতে দেওবন্দ মাদ্রাসায় ছাত্র বিক্ষোভেরও ঘটনা ঘটেছে। খবর মিল্লাত টাইমস উর্দূর।

ভারতজুড়ে প্রায় ২ মাস ধরে অব্যাহত রয়েছে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) ও নাগরিক তালিকা (এনআরসি) বিরোধী বিক্ষোভ।

রাজধানী নয়াদিল্লির জামিয়া মিলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় ও উত্তরপ্রদেশের শাহিনবাগের পাশাপাশি দেওবন্দের ঈদগাহ্ এলাকায়ও মুসলিম নারীরা এ নিয়ে বিক্ষোভ করছেন।

গত বৃহস্পতিবার সিএএ এবং এনআরসির বিরুদ্ধে দিল্লির শাহিনবাগ, দেওবন্দের ঈদগাহ্ এবং ভারতের অন্যান্য স্থানে অবস্থানরত মুসলিম নারীদের এক ভিডিও বার্তায় কর্মসূচি শেষ করার আহ্বান জানিয়েছিলেন দারুল উলুম দেওবন্দের মুহতামিম মুফতি আবুল কাসেম নোমানী।

সেই বক্তব্যের জেরে মুহূর্তেই পুরো ভারতজুড়ে মুসলমানদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। শুক্রবার দিনভর বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয় নানান পর্যালোচনা।

চলমান আন্দোলন নিয়ে মুহতামিম মুফতি আবুল কাসেম নোমানীর এমন বক্তব্যে দেওবন্দের ছাত্রদের মধ্যেও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ওই বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের ভিতরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।

পরে পরিস্থিতি সামাল দিতে দারুল উলুম দেওবন্দের মুহতামিম মুফতি আবুল কাসেম নোমানী এক বিবৃতিতে সেই বক্তব্য থেকে ফিরে আসেন। পাশাপাশি দেশব্যাপী চলমান সিএএ বিরোধী আন্দোলনে সমর্থন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন তিনি।

লিখিত বক্তব্যে আবুল কাসেম নোমানী বলেন, ইতিমধ্যে আমার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সাহারানপুর জেলা প্রশাসনের অনুরোধে দেওবন্দের শান্তি এবং নিরাপত্তার জন্য তাতে আমি বক্তব্য দিয়েছি।

ভাইরাল হওয়া বক্তব্যটি দারুল উলুমের প্রাতিষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য নয়। বরং আমার কথাকে কাটছাট করে উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রচার করা হয়েছে।

আল্লামা নোমানী বলেন, দেওবন্দের ঈদগাহ মাঠে সিএএ বিরোধী চলমান আন্দোলন বিষয়ে একটা ঘরোয়া মিটিংয়ে আমি ঈদগাহ মাঠের আন্দোলন নিয়ে নিজের একটি মতামত দিয়েছিলাম। সিএএ বিরোধী আন্দোলনের বিরোধিতা করার কোনো উদ্দেশ্য ছিল না বক্তব্যে।

তিনি বলেন, আমার বক্তব্যের উদ্দেশ্য এটা ছিল না যে, দারুল উলুম দেওবন্দ মা-বোনদের এই অবস্থান বন্ধ করুক। আমার বক্তব্যকে ভারতীয় মিডিয়া ভুলভাবে উপস্থাপন করে মুসলমানদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছে।

তিনি আরও বলেন, শেষ কথা হলো, যে কাজটা করার প্রয়োজন আমাদের পুরুষদের, সেটা করছে আমাদের মা-বোনেরা। দারুল উলুম দেওবন্দ সব বিক্ষোভকারীদের সফলতা কামনা করছে।

গণমাধ্যমে প্রেরিত আলাদা বিবৃতিতে দেশব্যাপী চলমান সিএএ বিরোধী আন্দোলন অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়েছে দারুল উলুম দেওবন্দ।

বিবৃতিতে বলা হয়, সিএএ প্রত্যাহার এবং এনআরসি আগামীতে কখনই না করার পরিপূর্ণ বিশ্বাস অর্জিত না হওয়া পর্যন্ত সংবিধানপ্রদত্ত অধিকারে এগুলোর বিরুদ্ধে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া উচিত।

Ads
Ads