যেভাবে এসেছে ভারতীয় মিডিয়ায় বাংলাদেশের বিশ্বজয়ের খবর

  • ১১-ফেব্রুয়ারী-২০২০ ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ
Ads

:: স্পোর্টস ডেস্ক ::

চারবারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে বিশ্বজয়ী এখন বাংলাদেশ। এই জয়ে যুবাদের প্রশংসা করে ভারতের অনেক মিডিয়া খবর প্রকাশ করেছে। পাশাপাশি অনেক মিডিয়া যুবাদের ভুল ধরা নিয়েই যেন ব্যস্ত ছিল।     

গতকাল রোববার দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে বৃষ্টি আইনে ৩ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবার শিরোপা জয় করেন আকবর আলী, পারভেজ হোসেনরা।

যুবাদের বিশ্বজয়ে ভারতের প্রভাবশালী গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস শিরোনাম করেছে, বৃথা গেল বিষ্ণের নায়কোচিত প্রচেষ্টা, ভারতকে হারিয়ে প্রথম শিরোপা জয় বাংলাদেশের।

এনডিটিভি লিখেছে, ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের প্রথম অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়।

এই জয় নিয়ে দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস একটি শিরোনাম হলো, প্রতিবেশী নায়কেরা। আরেকটি শিরোনাম করা হয়েছে, বাংলা ক্রিকেটের বিস্ময়কর গল্প।

একেবারে সাদামাটা শিরোনাম করেছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। বিস্তর প্রতিবেদনের শিরোনামে তারা লেখে, ভারতকে হারিয়ে প্রথম আইসিসি বিশ্বকাপ জয় বাংলাদেশের।

ভারতের দ্য টেলিগ্রাফ লিখেছে, হৃদয় ভাঙল ভারতীয় ছেলেদের।

জিনিউজ শিরোনাম দিয়েছে, সিংহের দেশে ব্যাঘ্রগর্জন! ভারতকে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ।

জুনিয়র টাইগারদের দুর্দান্ত জয়ের চেয়ে ঝগড়া-বিবাদের বিষয়টিতে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে ইন্ডিয়া টুডে। তারা শিরোনাম করেছে, ফাইনাল শেষে হাতাহাতির জন্য বাংলাদেশ খেলোয়াড়দের দুষছেন ভারতের অধিনায়ক।

আনন্দবাজার নিজেদের অনলাইন সংস্করণে অবশ্য হাতাহাতির বিষয়টি টেনেছে। তারা শিরোনাম করেছে, প্রায় হাতাহাতিতে শেষ হলো দ্বৈরথ।

ভারতীয় গণমাধ্যম এই সময় লিখেছে, বাংলাদেশের বিশ্বজয়। তারা আরেকটি শিরোনাম করেছে, ইতিহাস লিখলেন ১১ বাঙালি, ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বজয়ী বাংলাদেশ।

ভারতকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপে শিরোপা এখন বাংলাদেশের। অধিনায়ক আকবর আলীর দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে তিন উইকেটে জয় পান তারা। যুবারা এই জয় থেকে যখন মাত্র ১৫ রান দূরে, তখন বৃষ্টি নামে পচেফস্ট্রুমের আকাশে। পরে আবার খেলা শুরু হওয়ায় বৃষ্টি আইনে লক্ষ্য দাঁড়ায় মাত্র সাত রানে, যা নিতে আকবর আলীদের কোনো কষ্টই হয়নি।

Ads
Ads