সৈয়দ আশরাফের চিকিৎসা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে ওরা

  • ২৬-Jul-২০১৮ ০৬:০০ অপরাহ্ন
Ads

উৎপল দাস 

জনপ্রশাসন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এমাসের ৩ জুলাই চিকিৎসার জন্য ব্যাংককে যান। এখনও তাঁর চিকিৎসা চলছে সেখানে। চিকিৎসকদের সুত্র জানা গেছে, তাঁর শারীরিক অবস্থার দৃশ্যমান কোন উন্নতি হয় নাই এখন পর্যন্ত। এভাবেই খবরটি প্রকাশ করেছে একটি অনলাইন গণমাধ্যম। 

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের অবস্থা জানতে ভোরের পাতার পক্ষ থেকে তার ছোট ভাই সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটোর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তিনি বলেন, কয়েকটি গণমাধ্যম উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এর আগেও আমার ভাইয়ের চিকিৎসা নিয়ে মিথ্যাচার আর গুজব রটিয়েছে। তারা চিকিৎসকের বরাত দিয়ে লিখেছে তার অবস্থার উন্নতি হয়নি। কিন্তু তিনি কোন হাসপাতালে, কোন চিকিৎসকের তত্ববধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাই হয়তো জানেন না। 

সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের সর্বশেষ অবস্থা কেমন জানতে চাইলে টিটো ভোরের পাতাকে বলেন, তিনি এখন মোটামুটি সুস্থ আছেন। মাত্র ৪ সপ্তাহের মধ্যেই পুরোপুরি সুস্থ হয়ে দেশে ফিরবেন বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। 
এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া আওয়ামী লীগের কোনো নেতাই সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের চিকিৎসার তেমন খোঁজ খবর নিচ্ছেন না।  প্রধানমন্ত্রী সার্বক্ষনিকভাবে তাঁর চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যের বিষয়ে খোঁজ খবরও নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য জাতীয় চার নেতার একজন সৈয়দ নজরুল ইসলামের ছেলে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। নিজের সততা, নিষ্ঠা ও মেধার পরিচয়েই তিনি মানুষের মন জয় করেছেন।  

সৈয়দ আশরাফ পাদ প্রদীপে আসেন ওয়ান ইলেভেনের সময়। আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা যখন আদর্শের পরীক্ষায় হাবুডুবু খাচ্ছেন। তখন প্রয়াত জিল্লুর রহমান এবং বেগম মতিয়া চৌধুরীর সঙ্গে সৈয়দ আশরাফ শেখ হাসিনার পক্ষে এক অনবদ্য ভূমিকা পালন করেন। দলকে টেনে তোলেন খাদ থেকে।  

বর্তমানে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম এর আগে দায়িত্ব পালন করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও তিনি দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন করেছেন।

Ads
Ads