বাড়ী ফিরল আরও ৫ জন, ১ জনকে চমেক হাসপাতালে প্রেরন

  • ৩-Sep-২০১৮ ০৬:০০ অপরাহ্ন
Ads

চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারীর ত্রিপুরা পল্লীর সর্তা ত্রিপুরা(২৯)নামের এক অসুস্থ গৃহিনীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

সোমবার(০৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে সর্তা ত্রিপুরাকে তার স্বামী চন্দ্র কুমার ত্রিপুরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত চমেক হাসপাতালে প্রেরন করেন। এদিকে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বিকালের দিকে ছাড়পত্র দেয়া হলে আরও ৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডস্থ দক্ষিন উদালিয়ার সোনাইরকুলের ত্রিপুরা পল্লীর নিজ বাড়ীতে ফিরে যায়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শনিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে ছাড়পত্র পেয়ে ঝর্না ত্রিপুরা(৩),সুকান্দ ত্রিপুরা(৩),লক্ষণ ত্রিপুরা(৩),ইমা ত্রিপুরা(৮মাস),শিমুল ত্রিপুরা(৫),সুনিল ত্রিপুরা(৮), গুমাধন ত্রিপুরা(৭) এবং গত বৃহস্পতিবার ৭ জন সহ সোমবার ৫ জন হাম রোগের ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাদের বাসায় ফিরে গেছে। এদিকে ত্রিপুরা পল্লীর ৩ বছর বয়সী শিশু গীতা রানী ত্রিপুরা তার ছোট বোন শুভ রানী ত্রিপুরা(১) এবং তাদের মা চম্পা ত্রিপুরা(২৩) স্বামী-প্রেম কুমার ত্রিপুরা গত (২৬ আগস্ট) রবিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয় পরে সুস্থ হয়ে গত বৃহস্পতিবার তারা বাড়ি ফিরে যায়। কিন্তু বাড়ি ফেরার পর শরীরে জ্বর দেখা দিলে মাত্র ২ দিন পর পুনরায় তারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসে ভর্তি হন। 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু সৈয়দ মোহাম্মদ ইমতিয়াজ হোসাইন একই পরিবারের তিন জনের আবারও হাসপাতালে ভর্তির সত্যতা স্বীকার করে জানান, টিকা দেয়ার পর শরীরে জ্বর আসতেই পারে। ভর্তি হওয়া রোগীদের মধ্যে সোমবার পর্যন্ত মোট ২৮ জন রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেছে বলেও তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, হাটহাজারী উপজেলার ত্রিপুরা পল্লীতে হাম রোগে আক্রান্ত হয়ে গত রবিবার ২৬ আগস্ট সকালে অন্ন বালা ত্রিপুরা(৭), ২৪ আগস্ট শুক্রবার সম রায় ত্রিপুরা(৩) এবং মঙ্গলবার ২১ আগস্ট একই দিনে অন্ন রায় ত্রিপুরা(৫) ও কিশা মনি ত্রিপুরা(৩)নামের দুই শিশু সহ মোট চারজনের মৃত্যু হয় এবং আরো ৩২ জন হাম ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও সোনালী ত্রীপুরা(৫),গোপাল ত্রিপুরা(২), মেনশন চাকমা(৪) সহ তিন জনের অবস্থা গুরুতর হওয়াতে তাদের চট্টগ্রামস্থ সীতাকুন্ডের বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল ইনফেকশন ডিজিজে (বিআইটিআইডিতে)স্থানান্তর করা হয়েছিল।

Ads
Ads